গাছেরও প্রাণ আছে; তাহলে গাছের ছবি আঁকাও কি হারাম?

জিজ্ঞাসা–৮৪৭: আসসালামু আলাইকুম। গাছের ছবি আঁকা কি জায়েজ? কোনো প্রাণীর ছবি আঁকা হারাম। আমারা জানি গাছেরও প্রাণ আছে। যার প্রাণ আছে তাই প্রাণী। তাহলে গাছের ছবি আঁকাও কি হারাম?–সালমা।

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

এক. প্রিয় বোন, বৃক্ষ-লতা, প্রাকৃতিক দৃশ্য, কা‘বা গৃহ, মসজিদে নববী, বায়তুল আক্বছা বা অনুরূপ পবিত্র স্থানসমূহের ছবি, যদি তাতে কোন প্রাণীর ছবি না থাকে অংকন করা নিষেধ নয়। এর দলিল হল,

সাঈদ ইবন আবিল হাসান রহ. বলেন,

كُنْتُ عِنْدَ ابْنِ عَبَّاسٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ ، إِذْ أَتَاهُ رَجُلٌ ، فَقَالَ : يَا أَبَا عَبَّاسٍ ، إِنِّي إِنْسَانٌ ، إِنَّمَا مَعِيشَتِي مِنْ صَنْعَةِ يَدِي ، وَإِنِّي أَصْنَعُ هَذِهِ التَّصَاوِيرَ ، فَقَالَ ابْنُ عَبَّاسٍ : لَا أُحَدِّثُكَ إِلَّا مَا سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ ، يَقُولُ ، سَمِعْتُهُ يَقُولُ : ” مَنْ صَوَّرَ صُورَةً فَإِنَّ اللَّهَ مُعَذِّبُهُ حَتَّى يَنْفُخَ فِيهَا الرُّوحَ ، وَلَيْسَ بِنَافِخٍ فِيهَا أَبَدًا ، فَرَبَا الرَّجُلُ رَبْوَةً شَدِيدَةً وَاصْفَرَّ وَجْهُهُ ” ، فَقَالَ : وَيْحَكَ إِنْ أَبَيْتَ إِلَّا أَنْ تَصْنَعَ ، فَعَلَيْكَ بِهَذَا الشَّجَرِ كُلِّ شَيْءٍ لَيْسَ فِيهِ رُوحٌ

আমি একদা আব্দুল্লাহ ইবন আব্বাস রাযি.-এর কাছে ছিলাম। তখন তাঁর কাছে এক ব্যক্তি এল। লোকটি এসে বলল, হে ইবন আব্বাস! আমার উপার্জনের নির্ভরতা আমার হাতের সৃষ্টির উপর, আমি ছবি আঁকি। আব্দুল্লাহ ইবন আব্বাস রাযি. বললেন, আমি তোমার কাছে সেই কথা বর্ণনা করছি, যা আমি রাসূল ﷺ-কে বলতে শুনেছি, আমি রাসূল ﷺ-কে এটা বলতে শুনেছি যে, যেই ব্যক্তি ছবি বানায়, তাকে আল্লাহ তাআলা শাস্তি দিতে থাকবেন যতক্ষণ না সে উক্ত ছবিতে প্রাণ দিতে পারে, আর সেই ব্যক্তি কোনদিন তাতে প্রাণ দিতে পারবে না। একথা শুনে লোকটা দীর্ঘশ্বাস ফেলল। আর তার চেহারা পাংশু হয়ে গেল। তখন আব্দুল্লাহ ইবন আব্বাস রাযি. বললেন, আরে ভাই! যদি তুমি বানাতেই চাও, তাহলে গাছের ছবি আঁকো। আর প্রত্যেক ঐ বস্তুর ছবি আঁকো, যাতে প্রাণ নেই। (বুখারী ২১১২)

দুই. গাছের প্রাণ আছে– একথা ঠিক নয়; বরং গাছের জীবন আছে। আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَجَعَلْنَا مِنَ الْمَاء كُلَّ شَيْءٍ حَيٍّ أَفَلَا يُؤْمِنُونَ

এবং জীবন্ত সব কিছু আমি পানি থেকে সৃষ্টি করলাম। এরপরও কি তারা বিশ্বাস স্থাপন করবে না? (সূরা আম্বিয়া ৩০)

ফাতাওয়া শা’রাবী (الفتاوي للشعراوي)-তে এসেছে,

س: هل النمو دليل على وجود الروح؟

‘প্রশ্নঃ বৃদ্ধি ঘটা কি প্রাণের অস্তিত্বের প্রমাণ?’

كلا.. هذا هو الخلط، لأنهم يعتبرون أن كل ما ينمو فيه الروح، والنبات ينمو، ولا الروح فيه، ولكن فيه حياة.
إذن الحياة فى النبات، والروح ليست فيه رغم أنه ينمو.

‘উত্তরঃ মোটেও নয়। এটা প্রলাপ বৈ কিছু নয়। কেননা, তারা মনে করেছে, যা কিছু বেড়ে ওঠে তার মধ্যে প্রাণ আছে। বস্তুত বৃক্ষ-লতা বড় হয় ঠিক, তার মধ্যে প্রাণ নেই। তবে তার মধ্যে জীবন আছে। সুতরাং বৃক্ষ-লতার মাঝে জীবন আছে, তার মাঝে প্রাণ নেই, যদিও সে বেড়ে ওঠে।’  (ফাতাওয়া শা’রাবী ২০৬)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 18 =