জাযাকাল্লাহু খাইরান-এর উত্তরে কী বলতে হয়?

জিজ্ঞাসা–৭৫৭: আসসালামু আলাইকুম। হযরত আল্লাহ আপনার এই খেদমত কবুল করুন। আপনার প্রশ্নের উত্তর আমি যতই পড়ছি ততই অনুপ্রাণিত হচ্ছি। প্রশ্ন- জাঝাকাল্লাহু খইরন এই কথার উত্তরে কি বলতে হয়?  জাঝাকাল্লাহু খইরন।–Md Tusher Abdullah ‘

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

প্রিয় ভাই, আল্লাহ আপনাকেও তাঁর দীনের জন্য কবুল করুন। আর আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য–জাযাকাল্লাহু খাইরান।

জাযাকাল্লাহু খাইরান- এর জবাবে জাযাকাল্লাহু খাইরান বলবেন। কেননা হাদিস শরিফে এসেছে, একবার উসাইদ বিন হুযাইর রাযি. কোন এক প্রেক্ষিতে শুকরিয়া স্বরূপ রাসূল -কে বললেন, ‘জাযাকাল্লাহু খায়রান’ বা ‘জাযাকাল্লাহু আত্বইয়াবাল জাযা’। উত্তরে তিনি বললেন, ‘ফা জাযাকুমুল্লাহু খায়রান’ বা ‘ফা’জাযাকাল্লাহু আত্বইয়াবাল জাযা’। (নাসাই কুবরা ৮০২৪ ইবনে হিববান ৭২৭৭  মুসতাদরাক হাকিম ৪/৭৯)

তাছাড়া ওমর রাযি. থেকে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন,

لَوْ يَعْلَمُ أَحَدُكُمْ مَا لَهُ فِي قَوْلِهِ لِأَخِيهِ : جَزَاكَ اللَّهُ خَيْرًا , لَأَكْثَرَ مِنْهَا بَعْضُكُمْ لِبَعْضٍ

তোমরা যদি জানতে, তোমাদের ভাইদের জন্যে তোমাদের বলা কথা ‘জাযাকাল্লাহু খাইরান’ এর মধ্যে কী কল্যাণ নিহিত রয়েছে, তাহলে একে অন্যের সাথে প্রতিযোগী হয়ে বেশি বেশি ‘জাযাকাল্লাহু খাইরান’ বলতে। (মুসান্নাফ ইবনু আবী শাইবাহ ৫/৩২২)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 2 =