আহমাদ মুজতাবা নাম রাখা যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–৯০৯: আসসালামুআলাইকুম। আমি আমার ছেলের নাম “আহমাদ মুজতাবা” রাখতে চাই। মতামত দিয়ে বাধিত করবেন।–রফিক। জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته নবীগণ ও রাসূলগণের নাম রাখা নিঃসন্দেহে বরকতয়। কেননা, নাম ব্যক্তির শোভা ও প্রতীক; যা দিয়ে দুনিয়া ও আখেরাতে তাকে ডাকাবিস্তারিত পড়ুন

ইমতিয়াজ আহমাদ নাম রাখা যাবে কিনা?

জিজ্ঞাসা–৮৯৭: আমার ছেলের নাম ‘ইমতিয়াজ আহমাদ’ রাখতে চাই। এই নামের তাৎপর্য কি ? তা জানালে কৃতজ্ঞ থাকিব।–Md. Imam Hossain জবাব: ‘ইমতিয়াজ’ অর্থ শ্রেষ্ঠত্ব বা বৈশিষ্ট্য। আর ‘আহমাদ’ শব্দের দু’টি অর্থ। (ক) ‘অধিক প্রশংসিত’, আল্লাহর বান্দার মধ্যে যিনি সবচেয়ে বেশি প্রশংসারবিস্তারিত পড়ুন

কোরআন মজিদের কোথাও কি রাসুলুল্লাহ ﷺ -কে নাম ধরে সম্বোধন করা হয় নি?

জিজ্ঞাসা–৬৭৯: আমি আজকে একটা ভিডিও লেকচারে দেখলাম। একজন হুজুর বলছেন, (বিদেশী) পবিত্র কুরআনে কোথাও নবী (সা) কে নাম ধরে অর্থাৎ “হে মুহাম্মাদ” বলে ডাকা হয় নি। বরং “হে নবী”, “হে চাদরাবৃত” প্রভৃতি নামে ডাকা হয়েছে যেখানে এর আগের সকল নবীকেবিস্তারিত পড়ুন

নূর নবী ও নূর মুহাম্মাদ নাম রাখা জায়েয হবে কি এবং কোন নাম রাখা জায়েয নয়?

জিজ্ঞাসা–৬৫৪: আসসালামু আলাইকুম, জনাব! আমি যতটুকু জানি, নূর নবী অর্থ নবীর নূর/নবী নূরের তৈরী। ও নূর মুহাম্মাদ অর্থ মুহাম্মাদের নূর। এখন প্রশ্ন হল, নূর নবী ও নূর মুহাম্মাদ নাম রাখা জায়েয হবে কি? এবং কোন কোন নাম রাখা বৈধ না?বিস্তারিত পড়ুন

সাহাবায়ে কেরামের নামে শিশুদের নাম রাখা যাবে কিনা?

জিজ্ঞাসা-৬৮:সাহাবা আযমাইন রাদিয়াল্লাহু আনহুমদের নাম হুবহু সন্তানের নাম হিসেবে রাখতে চাইলে শরিয়তের দৃষ্টিভঙ্গি কি? উল্লেখ্য আমি একজনের কাছে শুনেছি হুবহু সাহাবাদের নামে নাম রাখা নাকি ঠিক নয়।–zamantauhid1@gmail.com জবাব:আপনি যা শুনেছেন তা ভুল।কারণ, নেককার ব্যক্তিদের নামে নাম রাখা ভালো। এর মাধ্যমে নবজাতকেরবিস্তারিত পড়ুন