আহমাদ মুজতাবা নাম রাখা যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–৯০৯: আসসালামুআলাইকুম। আমি আমার ছেলের নাম “আহমাদ মুজতাবা” রাখতে চাই। মতামত দিয়ে বাধিত করবেন।–রফিক।

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

নবীগণ ও রাসূলগণের নাম রাখা নিঃসন্দেহে বরকতয়। কেননা, নাম ব্যক্তির শোভা ও প্রতীক; যা দিয়ে দুনিয়া ও আখেরাতে তাকে ডাকা হবে। আর নবীগণ ও রাসূলগণেরমধ্যে সর্বোত্তম ও সবচেয়ে মর্যাদাবান হচ্ছেন আমাদের নবী মুহাম্মদ । তাঁর নামসমূহের মধ্যে রয়েছে–আহমাদ মুজতাবা। ‘আহমাদ’ শব্দের দু’টি অর্থ। (ক) ‘অধিক প্রশংসিত’, আল্লাহর বান্দার মধ্যে যিনি সবচেয়ে বেশি প্রশংসার যোগ্য। (খ) আল্লাহর সর্বাধিক প্রশংসাকারী। আর ‘মুজতাবা’ শব্দের অর্থ মনোনীত বা নির্বাচিত। সুতরাং এই নাম রাখা অবশ্যই বরকতের কারণ হবে–ইনশা-আল্লাহ।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 + nine =