ইসলামী ব্যাংক থেকে মুনাফা গ্রহণ করা যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–৩১২: আমার মেয়ের বিবাহের সময় মেহমানদারী ও কিছু উপহার দেওয়ার জন্য ইসলামী ব্যাংকে একটি ডিপিএস করি 10 বছরের জন্য। আমি ব্যাংকে জমা দেই 240000.00। ব্যাংক আমাকে দেয় 310000.00। অতিরিক্ত 70000.00 আমি মেয়ের বিবাহের সময় মেহমানদারী ও কিছু উপহার সামগ্রী কয়ের কাজে ব্যবহার করতে পারবো কিনা?– মোঃ বজলুল হক: bazlul123@gmail.com

জবাব: যেহেতু ইসলামী ব্যাংকগুলো এব্যাপারে পরিপূর্ণ প্রতিশ্রুতি দেয় যে, তারা সুদের ভিত্তিতে নয়; বরং লাভ-ক্ষতির ভিত্তিতে ইসলামের পূর্ণ রীতি মেনে ব্যাংকিং করে, সেহেতু তাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত মুনাফা-যেমন, প্রশ্নেল্লেখিত ৭০০০০ টাকা- গ্রহণ করে নিজেদের জন্য খরচ করাটা কিছু আলেম নাজায়েয মনে করেন না।

কিন্তু যেহেতু বাংলাদেশের ইসলামী ব্যাংকগুলো ইসলামের পূর্ণ রীতি মেনে ব্যাংকিং করে কিনা–এ নিয়ে ব্যাপক অভিযোগ আছে। তাই তাদের সঙ্গে কোনো ধরণের মুনাফা-চুক্তি না করাটাই হল তাকওয়ার পরিচায়ক। তবে প্রয়োজনের খাতিরে একাউন্ট খোলা নিষেধ নয়। আর যে লভ্যাংশ দিবে, তা সওয়াবের নিয়ত ছাড়া দান করে দেওয়াটাই উত্তম হবে। কেননা الضرورات تبيح المظورات তীব্র প্রয়োজন নিষিদ্ধ বিষয়কে বৈধ করে দেয়। (শরহুল কাওয়ায়িদিল ফিক্বহ লিজ জারক্বা, কায়দা নং-২০)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

আরো পড়ুন: মোবাইল ব্যাংকিং কি সুদের আওতায় পড়ে?

আরো পড়ুন: ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত সুদ কী করবেন?

আরো পড়ুন: ব্যাংকের আইটিতে চাকরি করা কি হারাম?

আরো পড়ুন: ব্যাংক বা সমিতিতে টাকা জমা রাখা বা চাকরি করা যাবে কি?

আরো পড়ুন: হোম লোন নেয়া জায়েয আছে কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − 5 =