কোরআন তেলাওয়াত ছেড়ে দিলে গুনাহ হয় কি?

জিজ্ঞাসা–৯৩০: অনেকে বলে থাকে টানা 7 দিন কুরআন না পড়লে গুনাহ হয়। এটা কি সত্য?–আইনুন নিশাত।

জবাব:

এক. নির্ধারিত এত দিনের কিংবা এত মাসের মধ্যে তেলাওয়াত করতেই হবে; না করলে গুনাহ হবে– কোরআন তেলাওয়াতের ক্ষেত্রে এজাতীয় কোনো নিয়ম নেই। কেননা,

. কোরআন ও সুন্নাহয় শুধু অধিকহারে তেলাওয়াতের ফজিলত আছে। সেখানে এমন কোনো বক্তব্য নেই যে, তিন দিন, সাত দিন কিংবা এক মাসের মধ্যে কোরআন তেলাওয়াত করতে হবে এবং না করলে গুনাহগার হবে।

. ফকিহগণ কেউ একথা বলেন নি যে, নির্ধারিত এত দিনের মধ্যে তেলাওয়াত করা ওয়াজিব এবং যে ব্যক্তি নির্ধারিত এত দিনের কিংবা এত মাসের মধ্যে তেলাওয়াত করবে না, সে গুনাহগার হবে।

দুই. তবে মুমিন যখন কোরআন তেলাওয়াত করে তখন তার অন্তর এবং সমস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ শান্তি ও প্রশান্তিতে ছেয়ে যায়। এর মাধ্যমে তার অন্তরাত্মা উন্নত হয়। আল্লাহ তাআলার গভীর সান্নিধ্য লাভ হয়। ইবন রজব রহ. বলেন,

ومن أعظم ما يُتقرَّب به العبد إلى الله تعالى منَِ النَّوافل: كثرة تلاوة القرآن، وسماعه بتفكُّر وتدبُّرٍ وتفهُّمٍ

নফল আমলসমুহের মধ্যে আল্লাহ তাআলার সান্নিধ্য লাভের অন্যতম মাধ্যম হল, বুঝে-শুনে অধিকহারে কোরআন তেলাওয়াত করা ও শোনা। (জামিউল উলুম ওয়াল হিকাম ৩/১০৮০)

আবূ উমামা রাযি. হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ বলেছেন,

وَمَا تَقَرَّبَ الْعِبَادُ إِلَى اللَّهِ بِمِثْلِ مَا خَرَجَ مِنْهُ

বান্দা কোরআন পাঠের মাধ্যমে আল্লাহ তাআলার যতটুকু নৈকট্য অর্জন করতে পারে অন্য কিছু দ্বারা তার এত নৈকট্য অর্জন করতে পারে না। (তিরমিযী ২৯১১)

কোরআন তেলাওয়াতের এরকম আরো বহু ফজিলত রয়েছেে বিধায় ফকিহগণ কোরআন তেলাওয়াত একটানা চল্লিশ দিনের বেশি সময় বিলম্ব করাকে মাকরূহ বলেছেন। যেমন ইবন কুদামা রহ. বলেন,

يكره أن يؤخر ختمة القرآن أكثر من أربعين يوما…وقال أحمد : أكثر ما سمعت أن يختم القرآن في أربعين . ولأن تأخيره أكثر من ذلك يفضي إلى نسيان القرآن والتهاون به ، فكان ما ذكرنا أولى ، وهذا إذا لم يكن له عذر ، فأما مع العذر فواسع له

‘কোরআন খতমের ক্ষেত্রে চল্লিশ দিনের বেশি সময় বিলম্ব করা মাকরূহ। আর ইমাম আহমদ রহ. বলেন, আমি বহু বার শুনেছি যে, চল্লিশ দিনে কোরআন খতম করতে হয়। কেননা এর চেয়ে বেশি বিলম্ব হলে ভুলে যেতে পারে কিংবা তার অবমাননা হয়। সুতরাং আমি যা বলেছি তা উত্তম। আর এটা তখন যখন কোনো ওযর থাকবে না। পক্ষান্তরে যদি ওযর থাকে তাহলে এক্ষেত্রে ছাড় আছে।’ (আলমাউসুআ’তুল ফিকহিয়্যা ৫৮/৫৯-৩৩)

তবে ইবন আ’বেদীন রহ. বলেন উক্ত কঠোরতা হাফেজদের জন্য। তিনি বলেন,

ينبغي لحافظ القرآن في كل أربعين يوما أن يختم مرة

কোরআনের হাফেজের জন্য উচিত হল, চল্লিশ দিনে একবার খতম করা। (আদদুররুল মুখতার ৬/৭৫৭)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 2 =