সুদের টাকা মসজিদ-মাদরাসায় দান করা যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–৮০৫: ব্যাংক এ টাকা রাখলে সুদ দেয়া হয়। কিন্তু ইসলাম এ সুদ খাওয়া হারাম। তাই উক্ত সুদের টাকা মসজিদ-মাদ্রাসায় দান করা যাবে কি? আর দান করা গেলে সদকায়ে জারিয়ার সাওাব পাওয়া যাবে কি?–জাহিদ আহমেদ।

জবাব: সুদের টাকা মসজিদ মাদরাসার কাজে লাগানো জায়েয হবে না। মসজিদ আল্লাহ তাআলার ঘর। মাদরাসা দ্বীনী ইলমের কেন্দ্র। এগুলো মুসলমানদের হালাল ও পবিত্র দান অনুদান দ্বারা নির্মিত ও পরিচালিত হবে। সুদের মত ঘৃণিত অর্থ মসজিদ মাদরাসার মত পবিত্র জায়গাতে ব্যয়ের চিন্তা করাও ঠিক নয়।দারুল উলুম দেওবন্দ-এর ফতোয়ায় বলা হয়েছে–

سودی رقم مال خبیث ہے اورخبیث مال کو عبادت خانہ (مسجد) میں لگانا شرعاً درست نہیں لقولہ علیہ السلام: إن اللہ طیّب لا یقبل إلاّ طیبا الخ (مشکوة:241)

সুদের টাকা নাপাক সম্পদ। আর নাপাক সম্পদ ইবাদতখানা তথা মসজিদে ব্যয় করা শরিয়তের দৃষ্টিতে জায়েয নয়। কেননা, রাসুলুল্লাহ ﷺ বলেছেন, নিশ্চয় আল্লাহ পবিত্র। তিনি একমাত্র পবিত্রটাই গ্রহণ ক্রেন…(মিশকাত ২৪১)। ( http://www.darulifta-deoband.com/home/ur/Waqf-Mosque-Madrasa/1032)

উল্লেখ্য, সুদের টাকা সাওয়াবের নিয়ত ছাড়া গরিবদের মধ্যে অথবা জনকল্যাণমূলক কাজে দান করে দিবে। সাওয়াবের নিয়ত করা যাবে না কারণ, সুদী পন্থায় অর্জিত অর্থের প্রকৃত মালিক আপনি নন।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen − 5 =