ডেটিং সাইটের মাধ্যমে উপার্জিত অর্থ হালাল কিনা?

জিজ্ঞাসা–৯৮১: আমাদের মহল্লায় অনলাইনের মাধ্যমে আয় করার বেশ ধুম পড়েছে। কাজটি মোটামুটি এইরকম ১ম এ বন্ধু বানিয়ে তার সাথে কিছু চ্যাট করার পর তাকে ১টি লিংক বা ঠিকানা দেওয়া হয়। তারপর সে ব্যক্তি ওই ঠিকানায় প্রবেশ করে নিজের ব্যাংক হিসাব নম্বর দিয়ে সাইন আপ করলে তার একাউন্ট থেকে কিছু টাকা কেটে নেয় আমি যে কোম্পানির অধীনে কাজ করছি সে কোম্পানি। এবং এর কিছু অংশ কোম্পানী আমাকে দিচ্ছে। উল্লেখ্য যে প্রক্রিয়াটি ডেটিং সাইটের মাধ্যমে হচ্ছ। এবং কিছু নগ্ন ছবিও কিছু সময়ে পাঠাতে হয়। উপার্জিত টাকা হালাল নাকি হারাম?–নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

জবাব: মূলত এ জাতীয় সাইটগুলো তরুণ ও যুবসমাজকে ভার্চুয়াল প্রেমের নামে নগ্নতা ও অশ্লীলতার প্রতি উৎসাহিত করে থাকে। সুতরাং অশ্লীলতানির্ভর  এজাতীয় সাইটের মাধ্যমে উপার্জিত অর্থ নিসন্দেহে হারাম।

 আল্লাহ তাআলা বলেছেন,

وَتَعَاوَنُوا عَلَى الْبِرِّ وَالتَّقْوَىٰ ۖ وَلَا تَعَاوَنُوا عَلَى الْإِثْمِ وَالْعُدْوَانِ

সৎকর্ম ও আল্লাহভীতিতে একে অন্যের সাহায্য কর। পাপ ও সীমালঙ্ঘনের ব্যাপারে একে অন্যের সহায়তা করো না। (সূরা মায়েদা ২)

আর এজাতীয় সাইটের মাধ্যমে যারা অর্থ উপার্জন করছে তাদের প্রতি আমাদের উপদেশ হল, এগুলো এখনই ছেড়ে দিন। তাওবা করুন, হালাল কোনো মাধ্যমে উপার্জন করার চেষ্টা করুন এবং রিজিকের ব্যাপারে আল্লাহ তাআলার উপর পরিপূর্ণ আস্থা ও ভরসা রাখুন, ইনশা-আল্লাহ, তিনি আপনার জন্য এর চাইতে সুন্দর উপায় বের করে দিবেন। কেননা আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَمَن يَتَّقِ اللَّهَ يَجْعَل لَّهُ مَخْرَجًا وَيَرْزُقْهُ مِنْ حَيْثُ لَا يَحْتَسِبُ ۚ وَمَن يَتَوَكَّلْ عَلَى اللَّهِ فَهُوَ حَسْبُهُ ۚ إِنَّ اللَّهَ بَالِغُ أَمْرِهِ ۚ قَدْ جَعَلَ اللَّهُ لِكُلِّ شَيْءٍ قَدْرًا

আর যে আল্লাহকে ভয় করে, আল্লাহ তার জন্যে নিস্কৃতির পথ করে দেবেন এবং তাকে তার ধারণাতীত জায়গা থেকে রিযিক দেবেন। যে ব্যক্তি আল্লাহর উপর ভরসা করে তার জন্যে তিনিই যথেষ্ট। আল্লাহ তার কাজ পূর্ণ করবেন। আল্লাহ সবকিছুর জন্যে একটি পরিমাণ স্থির করে রেখেছেন। (সূরা তালাক ২,৩)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + 10 =