ইসলামী প্রোগ্রামের ভিডিও দেখার হুকুম কি?

জিজ্ঞাসা–৩২৬: ইসলামী প্রোগ্রামের ভিডিও দেখার হুকুম কি? — রুহুল আমিন বিন রফিক: [email protected]

জবাব: কোনো দৃশ্য দেখার একটি মাধ্যমের নাম ভিডিও। সুতরাং যে সকল দৃশ্য বাস্তবে দেখা নাজায়েয, সেগুলো ভিডিওতে দেখা নাজায়েয। আর যে সকল দৃশ্য বাস্তবে দেখা জায়েয, সেগুলো ভিডিওতে দেখা জায়েয। হাদীস শরিফে এসেছে, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,

.ثلاثة لا ترى أعينهم النار : عين حرست في سبيل الله ، وعين بكت من خشية الله ، وعين غضت عن محارم الله

তিন শ্রেণীর লোক যাদের চোখ জাহান্নাম দেখবে না। যে চোখ আল্লাহর রাস্তায় পাহারা দিয়েছে। যে চোখ আল্লাহর ভয়ে কেঁদেছে। যে চোখ আল্লাহর নিষিদ্ধ স্থান থেকে বিরত থেকেছে। (তাবরানি: ১০০৩)

অপর হাদীসে এসেছে, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,

اَلْعَيْنَانِ زِنَاهُمَا النَّظْرُ وَالْاُذُنَانِ زِنَاهُمَا الْاِسْتِمَاعُ وَاللِّسَانُ زِنَاهُمَا الْكَلَامُ وَالْيَدُ زِنَاهُمَا الْبَطْشُ وَالرِّجْلُ زِنَاهُمَا الخُطَا وَالْقَلْبُ يَهْوِىْ وَيَتَمَنَّى وَيُصَدِّقُ ذَالِكَ الْفَرْجُ اَوْ يُكَذِّبُه

দুই চোখের ব্যভিচার হল হারাম দৃষ্টি দেয়া, দুই কানের ব্যভিচার হল পরনারীর কণ্ঠস্বর শোনা, জিহবার ব্যভিচার হল, [পরনারীর সাথে সুড়সুড়িমূলক] কথোপকথন। হাতের ব্যভিচার হল পরনারী স্পর্শ করা, পায়ের ব্যভিচার হল গুনাহর কাজের দিকে পা বাড়ান, অন্তরের ব্যভিচার হল কামনা-বাসনা আর গুপ্তাঙ্গঁ তা সত্য অথবা মিথ্যায় পরিণত করে। (সহীহ মুসলিম ২৬৫৭, মুসনাদে আহমাদ ৮৯৩২)

উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

আরো পড়ুন: