কাপড়ে মযী বা কামরস লাগলে করণীয়

জিজ্ঞাসা–১৩৮০: রমজান মাসে এশার নামাজের পর পোশাকে যদি কামরস লেগে যায়, অর্থাৎ মযী হয়, তাহলে করনীয় কি? এবং যদি পোশাক পরিবর্তন করা হয় তাহলে কি পবিত্রতা অর্জন করা যাবে?–আবদুল্লাহ আল মামুন।

জবাব: মযী বা কামরস নাপাক। এর কারণে অজু নষ্ট হয় এবং এটি শরীরে বা কাপড়ে লাগলে যতটুকতে লেগেছে ততটুকু ধুয়ে ফেলা আবশ্যক। পুরা পোশাক ধোয়া বা পরিবর্তন করা আবশ্যক নয়।

عَنْ سَهْلِ بْنِ حُنَيْفٍ، قَالَ كُنْتُ أَلْقَى مِنَ الْمَذْىِ شِدَّةً وَكُنْتُ أُكْثِرُ مِنْهُ الاِغْتِسَالَ فَسَأَلْتُ رَسُولَ اللَّهِ ﷺم عَنْ ذَلِكَ فَقَالَ :‏ إِنَّمَا يُجْزِيكَ مِنْ ذَلِكَ الْوُضُوءُ ‏‏.‏ قُلْتُ يَا رَسُولَ اللَّهِ فَكَيْفَ بِمَا يُصِيبُ ثَوْبِي مِنْهُ قَالَ ‏: يَكْفِيكَ بِأَنْ تَأْخُذَ كَفًّا مِنْ مَاءٍ فَتَنْضَحَ بِهَا مِنْ ثَوْبِكَ حَيْثُ تُرَى أَنَّهُ أَصَابَهُ ‏

সাহল ইবনু হুসাইফ রাযি. হতে বর্ণিত, তিনি বলেছেন, আমার অত্যধিক মযী নির্গত হত তাই আমি অধিক গোসল করতাম। অতঃপর আমি এ ব্যাপারে রাসূলুল্লাহ ﷺ-কে জিজ্ঞাসা করি তিনি বলেন, মযী বের হওয়ার পর অযু করাই যথেষ্ট। তখন আমি বলি, ইয়া রাসূলুল্লাহ্! আমার কাপড়ে মযী লাগলে কি করব? তিনি বলেন, কাপড়ের যে যে স্থানে মযীর নিদর্শন দেখবে, এক আজলা পানি নিয়ে উক্ত স্থান ধুয়ে নিবে, যাতে তা দূরীভূত হয়। (আবু দাউদ ২১০)

والله اعلم بالصواب

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 1 =