গরম পানির ভাপ নিলে কি রোজা থাকে?

জিজ্ঞাসা–১৪৯৭: গরম পানির ভাপ নিলে কি রোজা থাকে?–মোঃ নোমান আহম্মেদ।

জবাব: সাদা গরম পানি হোক কিংবা ওষুধ বা মশলা মিশ্রিত গরম পানি হোক তার ভাপ নেয়া, অনুরূপভাবে ভাপ স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ করুক কিংবা মেশিনের মাধ্যমে গ্রহণ করুক–মোট কথা যেভাবেই গ্রহণ করুক না কেন; রোজা অবস্থায় ইচ্ছাকৃত গরম পানির ভাপ নিলেই রোজা ভেঙ্গে যাবে।

ইবনু আবেদীন রহ. বলেন,

 أَنَّهُ لَوْ أَدْخَلَ حَلْقَهُ الدُّخَانَ أَيْ بِأَيِّ صُورَةٍ كَانَ الإِدْخَالُ , حَتَّى لَوْ تَبَخَّرَ بِبَخُورٍ، وَآوَاهُ إلَى نَفَسِهِ، وَاشْتَمَّهُ ذَاكِرًا لِصَوْمِهِ: أَفْطَرَ ؛ لإِمْكَانِ التَّحَرُّزِ عَنْهُ . وَهَذَا مِمَّا يَغْفُلُ عَنْهُ كَثِيرٌ مِنْ النَّاسِ

যদি রোজাদার তার গলার ভেতরে ধোঁয়া প্রবেশ করায়; প্রবেশ করানোটা যেভাবেই হোক না কেন; এমনকি রোজার কথা মনে থাকা অবস্থায় যদি সে ধুপ জ্বালিয়ে ঘ্রাণ নেয় অথবা  নিজেকে ধোঁয়ার কাছে নিয়ে যায় তাহলে রোজা ভেঙ্গে যাবে। কেননা, এ থেকে বিরত থাকা তার জন্য সম্ভব ছিল। বস্তুত এটি এমন বিষয় যে, অনেক মানুষ এ সম্পর্কে উদাসীন। (হাশিয়া ইবন আবেদীন ২/৯৭)

والله أعلم بالصواب

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten − 3 =