গাছের প্রাণ নয়; জীবন আছে

জিজ্ঞাসা–৮৬৪: আসসালামু আলাইকুম। হযরত কেমন আছেন? আপনি একটা প্রশ্নের উত্তরে গাছের জীবন আছে তবে প্রাণ নেই বলেছেন। আমি আসলে জানতে চাচ্ছি,জীবন আর প্রাণের মধ্যে মূলত পার্থক্য কি? মেহেরবানি করে জানালে উপকৃত হতাম।–মোঃ তুষার আব্দুল্লাহ।

জবাব:  وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

বিষয়টির ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে শায়েখ বিন বায রহ. বলেন,

الحياة حياتان كما بين أهل العلم، ودل على هذا كتاب الله وسنة رسوله عليه الصلاة والسلام
الحياة حياتان: حياة ذات روح، تسمع وتُبصر، وتخرج وتأتي، وهذه: الحيوانات، لبنو آدم والحيوان روح، خلقها الله مستقلة، تدخل في الحيوان وتخرج من الحيوان بالموت، والروح الله أعلم بكنهها، قال تعالى: وَيَسْأَلونَكَ عَنِ الرُّوحِ قُلِ الرُّوحُ مِنْ أَمْرِ رَبِّي [الإسراء:85]
الحياة الثانية: حياة النمو والزيادة والحركة، هذه للنباتات التي جعلها الله تشب وتنمو وتشيب وتهلك، هذه حياة نمائية بسبب الماء، أو بأسباب أخرى، هذه حياة خاصة، ليست حياة الروح التي تدخل وتخرج وتسمع، حياة جمادية، ليس لها خصائص الروح.

কোরআন ও সুন্নাহর বক্তব্য থেকে বোঝা যায়, জীবন দুই প্রকার–

এক. প্রাণধারী জীবন; যার শ্রবণ ও দৃষ্টিশক্তি আছে। আসা-যাওয়া করতে পারে। পশুকূল এই শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত। মানুষ ও পশুর মাঝে প্রাণ আছে। যে প্রাণ আল্লাহ তাআলা স্বতন্ত্রভাবে সৃষ্টি করেছেন। যা প্রানীদেহে প্রবেশ করে এবং মৃত্যুর মাধ্যমে বের হয়ে যায়। প্রাণ কী; আল্লাহ ভালো জানেন। আল্লাহ তাআলা বলেন, তারা আপনাকে প্রাণ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করবে, আপনি বলুন, এটা আমার প্রভুর নির্দেশ। (আল ইসরা ৮৫)

দুই. প্রাণহীন জীবন; এটি বেড়ে ওঠে, বৃদ্ধি লাভ করে, নড়াচড়াও করে। উদ্ভিতজগত এই শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত। আল্লাহ তাআলা এগুলোকেও যৌবন, বেড়ে ওঠা, ফিকে হওয়া ও ধ্বংস হওয়া দান করেছেন। পানির কারণে কিংবা অন্যান্য কারণে এগুলো বড় হয়। এটা বিশেষ ধরণের জীবন। তবে ঐ প্রাণধারী জীবন নয়; যার শ্রবণ ও দৃষ্টিশক্তি আছে। চলা-ফেরা করতে পারে। এগুলো জড়শ্রেণীর; প্রাণীশ্রেণীর নয়। (https://binbaz.org.sa/fatwas/2823)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + 18 =