তাহাজ্জুদ, ইশরাক ও বিতির নামাজ পড়ার নিয়ম

জিজ্ঞাসা–৩৭০: আসসালামু আলাইকুম। হানাফি মাযহাবে তাহাজ্জুদ, এশরাক এবং বিতর এর সালাত আদায়ের সঠিক নিয়মগুলো জানালে খুব উপকৃত হবো। ধন্যবাদ।– Saiful Islam

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

প্রশ্নকারী ভাই, মূলতঃ তাহাজ্জুদ, ইশরাক নফল নামাজ। এগুলো আদায় করার আলাদা কোনো নিয়ম নেই। স্বাভাবিক নামাজের মতোই উত্তমভাবে অজু করে দুই রাকাত নফল নামাজ পড়বেন। নফল নামাযের নিয়ত চার রাকাত করেও করা যায়, দুই রাকাত করেও করা যায়। তবে রাতের নামাযে দুই রাকাত করে নিয়ত করা উত্তম। কেননা আব্দুল্লাহ ইবনে উমার রাযি. থেকে বর্ণিত হাদীসে এসেছে, নবী ﷺ বলেছেন, صَلاَةُ اللَّيْلِ مَثْنَى مَثْنَى রাতের নামায দু’ দু’ রাকাত করে। (সহীহুল বুখারী: ৪৭২, ৯৯৩,১১৩৭, মুসলিম: ৭৪৯)

তাহাজ্জুদ নামাজ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে পড়ুন–জিজ্ঞাসা নং–৩০৩ এবং জিজ্ঞাসা নং–৩২৩

আর বিতির নামাজ তিন রাকাত। এটি পড়ার নিয়ম হল, অন্যান্য ফরজ নামাজের ন্যায় দুই রাকাআত নামাজ পড়ে প্রথম বৈঠকে বসে তাশাহহুদ পড়বেন। সালাম ফেরাবেন না। তারপর তৃতীয় রাকআত পড়ার জন্য উঠে সুরা ফাতিহার সঙ্গে অন্য কোনো সুরা বা আয়াত মিলাবেন। কিরাআত (সুরা বা অন্য আয়াত মিলানোর পর) শেষ করার পর তাকবির বলে দু’হাত কান পর্যন্ত উঠিয়ে তাকবিরে তাহরিমার মতো হাত বাঁধবেন। তারপর নিঃশব্দে দোয়া কুনুত পড়বেন। দোয়া কুনুত পড়ে পূর্বের ন্যায় রুকু, সিজদার পর শেষ তাশাহহুদ, দরূদ, দোয়া মাছুরা পড়ে ছালাম ফিরানোর মাধ্যমে বিতরের নামাজ সমাপ্ত করবেন।

বিতির নামাজ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে পড়ুন–জিজ্ঞাসা নং–০১জিজ্ঞাসা নং–৬১৩

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + 14 =