দাঁড়ি কাটলে গুনাহ হবে কি?

জিজ্ঞাসা–১২৪৮: কেউ যদি দাঁড়ি কর্তন করে তাহলে তার গুনাহ হবে কি না? একটু দলিল সহকারে সমাধান চাই।–মোহাম্মদ আব্দুর রহমান।

জবাব: প্রিয় দ্বীনি ভাই, আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামাআতের সকল মুজতাহিদ-ইমাম বলেন, দাঁড়ি লম্বা রাখা ওয়াজিব এবং তা কমপক্ষে এক মুষ্ঠি পরিমাণ হতে হবে । এ ব্যাপারে চার মাযহাবের সকল ইমামের ইজমা প্রতিষ্ঠিত। এক মুষ্ঠির অতিরিক্ত অংশ কাটার সুযোগ শরীয়তে রয়েছে। এক মুষ্ঠির কম রাখা বা একেবারে তা মুন্ডানো সর্বসম্মতিক্রমে হারাম এবং কবীরা গোনাহ। কেননা ইবনে ওমর  রাযি.-এর সূত্রে বর্ণিত রাসূলুল্লাহু বলেছেন,

خَالِفُوا المُشْرِكِينَ وَفِّرُوا اللِّحَى، وَأَحْفُوا الشَّوَارِبَ

তোমরা মুশরিকদের বিরোধিতা কর, দাঁড়ি লম্বা রাখো এবং গোঁফ ছোট কর।( বুখারী ৫৮৯৩ , মুসলিম ৬০০)

হাদীসের কিতাবে পাওয়া যায়, আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রাযি. ও আবু হুরায়রা রাযি. এক মুষ্ঠির অতিরিক্ত অংশ কেটেছেন। যেমন-

আবু যুরআ’ রহ. বলেন,

كَانَ أَبُو هُرَيْرَةَ يَقْبِضُ عَلَى لِحْيَتِهِ، ثُمَّ يَأْخُذُ مَا فَضَلَ عَنِ الْقُبْضَةِ‏‏

আবু হুরায়রা রাযি. তাঁর দাড়ি মুঠ করে ধরতেন। এরপর এক মুষ্ঠির অতিরিক্ত অংশ কেটে ফেলতেন।(মুসান্নাফ ইবনে আবী শাইবা ২৫৯৯২; ২৫৯৯৯)

নাফে রহ. বলেন,

عَنِ ابْنِ عُمَرَ، أَنَّهُ كَانَ يَأْخُذُ مَا فَوْقَ الْقُبْضَةِ

আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রাযি. মুষ্ঠির অতিরিক্ত দাড়ি কেটে ফেলতেন।(প্রাগুক্ত ২৫৯৯৭)

হাসান বসরী রহ. বলেন,

كَانُوا يُرَخِّصُونَ فِيمَا زَادَ عَلَى الْقُبْضَةِ مِنَ اللِّحْيَةِ أَنْ يُؤْخَذَ مِنْهَا‏

তাঁরা (সাহাবা-তাবেয়ীগণ) মুষ্ঠির অতিরিক্ত দাঁড়ি কাটার অবকাশ দিতেন।(প্রাগুক্ত ২৫৯৯৫)

কিন্তু কোনো সহীহ বর্ণনায় এক মুষ্ঠির ভিতরে দাঁড়ি কাটার কোনো অবকাশ পাওয়া যায় না।

সাহাবা-তাবেয়ীনের এই আমলকে  এসম্পর্কিত মারফূ-হাদীসগুলোর ব্যাখ্যা হিসেবে গ্রহণ করা যায়। সুতরাং এ বিষয়ের হাদীস ও আছার থেকে প্রতীয়মান হয় যে, দাঁড়ি লম্বা রাখা ওয়াজিব, কেটে বা ছেটে এক মুষ্ঠির চেয়ে কম রাখার অবকাশ শরীয়তে নেই।

প্রিয় দ্বীনি ভাই, বর্তমানে দাঁড়ি নিয়ে খেল-তামাসা চলছে। কেউ কেউ এটাকে কেটে ছেটে থুতনির উপর নিয়ে রেখেছে, কেউ কেউ দাঁড়িকে হালকা সরল কালো রেখা, আবার কেউ বক্র রেখার মতো এঁকেছে। কেউ কেউ দাঁড়ি মোচ এক করে ফ্রেন্চ কার্টিন করে বৃত্ত অংকন করে রেখেছে।

আবার অনেক যুবক কোনো খেলোয়াড় বা নায়কের নতুন ধরনের চুল বা দাঁড়ির কাটে উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজের চেহারাতেও সেরকম করার অযথা চেষ্টা চালায়। আবার কেউ কেউ ষ্টাইল করে কেটে-ছেটে খুব ছোট ছোট করে গালের সাথে মিলিয়ে রেখেছে। অনেকে ক‘দিন রাখে আবার ক‘দিন শেষ করে দেয়। এসব দাঁড়ি যে উদ্দেশ্যে রাখা হয়েছে, সেটাই হবে, সাওয়াব কখনও হবে না। আল্লাহ সহিহ বুঝ দান করুন। আমীন।

আরো বিস্তারিত জানার জন্য দেখুন জিজ্ঞাসা নং–১৪২

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী