পিতা-মাতার অজান্তে বিয়ে করা

জিজ্ঞাসা-২৩:আমি একটি মেয়েকে ভালোবাসি। আমাদের মাঝে পরস্পরে চোখের গোনাহ হয়। আমরা দুজনই ছাত্র। আমার বয়স ষোল আর মেয়ের বয়স সতের। গোনাহ থেকে বাঁচার জন্য আমরা কাজি অফিসে না গিয়ে দুজন সাক্ষীর সামনে বিয়ে পড়িয়ে চলতে চাই। আমরা এখন পরিবারকে জানাবো না। পরবর্তীতে কর্মজীবনে গিয়ে জানাবো। আমাদের এ বিয়েটি সহিহ হবে কি না? এবং এ মুর্হূতে আমাদের করণীয় কী?–নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

জবাব : বিয়ের সঠিক সময় এবং সঠিক পদ্ধতি হচ্ছে উপযুক্ত বয়সে স্ত্রীর ভরণ পোষণের ক্ষমতা অর্জনের পর পিতা-মাতার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উপযুক্ত পাত্রীকে বিয়ে করা। সময়ের পূর্বে পিতা-মাতার অজান্তে বিয়ে করা একেবারেই অনুচিত। কেননা তা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ভয়াবহ পরিণাম ডেকে আনে। এক্ষেত্রে এখন আপনার করণীয় হচ্ছে পরিণত বয়সে পিতা-মাতার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিয়ে করা এবং সকল প্রকার অবৈধ কাজ থেকে বিরত থাকা। তবে যদি কমপক্ষে দুজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে বিয়ে করেই ফেলেন, তাহলে যদিও শরিয়তের দৃষ্টিতে বিয়ে শুদ্ধ হয়ে যাবেÑ কিন্তু সামাজিক দৃষ্টিকোণ থেকে তা সম্পূর্ণ অনুচিত হবে। আপনি আখেরাত ও জাহান্নামের কথা স্মরণ করে গুনাহ থেকে বাঁচার চেষ্টা করুন এবং প্রয়োজনে অভিভাবকদের জানিয়ে তাদের পরামর্শক্রমেই বিয়ে করুন। দায় দায়িত্বহীনভাবে গোপনে বিয়ে করা শরিয়তের দৃষ্টিতে পছন্দনীয় নয়। তাছাড়া মেয়ের অভিভাবকদের না জানিয়ে বিয়ে করা তার জন্যও চরম ক্ষতির কারণ হতে পারে।
[আদ দুররুল মুখতার ৩/৫৬, আল বাহরুর রায়েক ৩/১৯২]

প্রিয় প্রশ্নকারী ভাই! এ বিষয়ে আরো জানতে চাইলে জিজ্ঞাসা নং-৬৪ পড়তে পারেন।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী