ফরজ গোসল না করে সেহরি খাওয়া যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–১৩৭৮: উত্তেজনার বশবর্তী হয়ে লিঙ্গ দিয়ে কয়েক ফোটা বীর্য বেরিয়ে গেলে তখন যদি গোসল করার উপায় না থাকে তাহলে আমি সেই অবস্থাতেও সেহরি খেয়ে রোজা রাখতে পারবো?–Iqbal

জবাব: উত্তেজনার কারণে মযি বা কামরস নির্গত হলে ওযূ নষ্ট হয় এবং যেখানে মযি লেগেছে ওই জায়গা ধুয়ে ফেলতে হয়। এর কারণে গোসল ওয়াজিব হয় না। কিন্তু যদি উত্তেজনার কারণে মনি তথা তথা বীর্য বের হয় তাহলে গোসল ফরয হয়।

বিস্তারিত দেখুন জিজ্ঞাসা নং–১৩২১।

আর গোসল ফরজ অবস্থায় নামায, তাওয়াফ, কুরআন তেলাওয়াত ও স্পর্শ করা এবং মসজিদে গমণ করা ছাড়া অন্যান্য সবধরণের কাজ করা যায়। (বুখারী ২৭৯) সুতরাং সাহরিও খাওয়া যাবে।

তবে মনে রাখতে হবে, গোসল ফরজ হওয়া সত্ত্বেও বিনা ওজরে অপবিত্র অবস্থায় এক ওয়াক্ত নামাজের সময় অতিবাহিত হয়ে যাওয়া মারাত্মক গোনাহ। (বাদায়ে ১/১৫১)

عَنْ نَوْفَلِ بْنِ مُعَاوِيَةَ، أَنَّ النَّبِيَّ ﷺ قَالَ: مَنْ فَاتَتْهُ الصَّلَاةُ فَكَأَنَّمَا وُتِرَ أَهْلَهُ وَمَالَهُ

নওফেল বিন মুআবিয়া রাযি. থেকে বর্ণিত, রাসূল ﷺ বলেছেন, যার নামায ফউত হয়ে গেল, যেন তার পরিবার ও সম্পদ সবই ধ্বংস হয়ে গেল। (মুসনাদে আহমাদ ২৩৬৪২)

সুতরাং ফজর নামাজের আগেই গোসল করে নিবেন এবং নামাজ আদায় করবেন।

والله اعلم بالصواب