ফেসবুকে মেয়েরা নিজেদের হাত-পায়ের ছবি কিংবা হিজাব পরিহিত ছবি আপলোড করতে পারবে কিনা?

জিজ্ঞাসা–৯৭১: আসসালামু আলাইকুম। আমার প্রশ্ন হচ্ছে, আমি কি আমার হাত বা পায়ের ছবি অথবা আমার নেকাব পড়া ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করতে পারি? অথবা অন্য কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রোফাইল হিসেবে ব্যাবহার করতে পারি? এই ব্যাপারে ইসলাম কি বলে?– নওরীন জান্নাত।

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

ফেসবুকে অথবা অন্য কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মেয়েরা নিজেদের হাত-পায়ের ছবি কিংবা বিনা প্রয়োজনে হিজাব পরিহিত ছবি আপলোড করা ইসলামের দৃষ্টিতে নাজায়েয। তবে যদি সম্পূর্ণ হিজাব মেনে চলা হয় এবং চোখসহ সম্পূর্ণ চেহারা ঢেকে রাখা হয় তখন কিছু কিছু ক্ষেত্রে বিশেষ করে প্রয়োজনের ক্ষেত্রে নিজেদের হিজাব পরিহিত ছবি আপলোড করা নাজায়েয নয়। কেননা, ফকিহগণের নিকট একটি  স্বীকৃত মূলনীতি হল, লাভের চেয়ে ক্ষতি রোধের গুরুত্ব বেশি। আর একজন সচেতন মুসলিম নারী মানেই এটা বুঝতে পারার কথা যে, ইন্টারনেটে বিশেষ করে ফেসবুকে নিজেদের এ জাতীয় ছবি আপলোড করার মাঝে কোন জরুরাত কিংবা বেনেফিশিয়াল কিছু নেই। যা আছে তা হল ফিতনা এবং নিজেদের নিরাপত্তাহীনতা।

রাসূলুল্লাহ বলেছেন,

المرأةُ عورةٌ فإذا خرجتْ اسْتَشْرَفَها الشيطانُ وأقربُ ما تكونُ مِن وَجْهِ ربِّها وهي في قَعْرِ بيتها

নারী গোপনজিনিস, যখন সে ঘর থেকে বের হয় শয়তান তাকে চুপিসারে দেখে। নারী নিজ প্রভুর সবচে’ নিকটতম তখন হয় যখন সে নিজের ঘরের মাঝে লুকিয়ে থাকে। (তিরমিযি ১১৭৩)

লক্ষণীয় বিষয় হল, রাসূলুল্লাহ ﷺ উক্ত কথাটি সাহাবিদের উদ্দেশ্যে যেই সময়ে বলেছেন সেই সময়ে নিশ্চয় নারী-সাহাবিরা হিজাববিহীন বের হতেন না! সুতরাং কারো যদি নুন্যতম কমনসেন্স থেকে থাকে তাহলে তার বোঝার কথা যে, নারীদের সব ধরনের পোশাক ও সৌন্দর্য পরপুরুষের সামনে থেকে আড়ালে রাখাটাই হল মূল। তবে বিশেষ প্রয়োজন হলে ভিন্ন কথা। তখন ফেতনার আশঙ্কা না থাকলে সম্পূর্ণ হিজাবের সঙ্গে পরপুরুষের সামনে নিজেকে প্রকাশ করলে কোনো সমস্যা নেই।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

ন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + 19 =