বাবা-মা তারাবী ২০ রাকাত পড়তে না দিলে করণীয়

জিজ্ঞাসা–৩৫৭: আস্সালামুআলাইকুম, আমি ক্লাস ৯ এর ছাত্র আমি 20 রাকআত তারাবিহ পড়তে চাই কিন্তু আম্মা পড়ালেখার চাপের জন্য ৮ রাকআত তারাবিহ পড়ে বাসায় যেতে বলেন, এখন আমি কী করবো?–ফুয়াদ হাসান।

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

তারাবী ৮ রাকাত পড়া তোমার মায়ের নির্দেশ। আর ২০ রাকাত তারাবী রাসুলুল্লাহ এর সুন্নাত। আর আনুগত্যের সবচেয়ে বড় দাবিদার সন্তানের জন্য বাবা-মা অবশ্যই কিন্তু এ দাবী বিকল হয়ে যাবে, যখন তাঁরা এমন কিছু দাবী করবেন, যা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের আদেশ-নিষেধের সীমা লঙ্ঘন করবে। সৃষ্টির আনুগত্যের এ সীমারেখা বর্ণনা করতে গিয়ে রাসূল বলেন, অসৎকাজে আনুগত্য নয়; আনুগত্য কেবলমাত্র সৎকাজের ক্ষেত্রেই হতে হবে’’। (সহীহ বুখারী ৭১৪৫; সহীহ মুসলিম, ১৮৪০০)

সুতরাং আলোচ্য ক্ষেত্রে তুমি যা করবে তাহল–

১। তুমি তারাবী ২০ রাকাতই আদায় করবে।

২। তোমার মাকে নম্রতা ও বিনয়ের সঙ্গে বুঝাবে যে, তারাবী ২০ রাকাত সুন্নতে মুআক্কাদা। আর সুন্নতে মুআক্কাদা ওয়াজিবের মতই। অর্থাৎ ওয়াজিবের ব্যাপারে যেমন জবাবদিহী করতে হবে, তেমনি সুন্নতে মুআক্কাদার ক্ষেত্রে জবাবদিহী করতে হবে। তবে ওয়াজিব তরককারীর জন্য সুনিশ্চিত শাস্তি পেতে হবে, আর সুন্নতে মুআক্কাদা ছেড়ে দিলে কখনো মাফ পেয়েও যেতে পারে। তবে শাস্তিও পেতে পারে।

তারাবীর নামাযের রাকাত সংখ্যা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ে নাও–জিজ্ঞাসা নং–৩৩৬

৩। তোমার পড়ালেখার চাপ; এই অজুহাত যেন তোমার সুন্নতে মুআক্কাদাহ পালনে তোমার মা বাধাদানকারী না হয়; এজন্য সুন্নাহ পালনের গুরুত্ব ও মহান প্রতিদান তাঁর সামনে তুলে ধরবে। যেমন রাসূল বলেছেন,

 كُلُّ أُمَّتِي يَدْخُلُونَ الْجَنَّةَ إِلاَّ مَنْ أَبَى قَالُوا يَا رَسُولَ اللهِ وَمَنْ يَأْبَى قَالَ مَنْ أَطَاعَنِي دَخَلَ الْجَنَّةَ وَمَنْ عَصَانِي فَقَدْ أَبَى

আমার সকল উম্মতই জান্নাতে প্রবেশ করবে তবে যারা অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করেছে তারা ব্যতীত। জিজ্ঞাসা করা হল, কারা অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করেছে? তিনি বললেন, যে আমার অনুসরণ করে সে জান্নাতে প্রবেশ করবে, আর যে আমাকে অমান্য করে সেই অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করেছে। (বুখারি: ৭২৮০)

সর্বোপরি আল্লাহর কাছে দুআ করবে, যেন তোমার মায়েরর মন-মানসিকতার পরিবর্তন হয়।

আমরা আল্লাহর কাছে আমাদের জন্য ও তোমার জন্য শক্তি ও সামর্থ্য প্রার্থনা করছি।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 − eight =