বিবাহিত নারী বাবার বাড়িতে বেড়াতে গেলে মুসাফির কিন্তু…

জিজ্ঞাসা–১২৫২: আসসালামু আলাইকুম,বাবার বাড়িতে বেড়াতে গেলে কসর হবে এটা না জানার কারণে পূর্ণ নামাজ পড়লে সেই নামাজগুলো পুনরায় আদায় করতে হবে কি?–ফাতেমাতুজ জোহরা।

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

এক. বিয়ের পর নারীর জন্য স্বামীর বাড়ি কিংবা স্বামীর সঙ্গে অবস্থানের স্থানই স্থায়ী নিবাস। সুতরাং বিবাহিত কোনো নারীর বাবার বাড়ি যদি স্বামীর বাড়ি বা স্বামীর অবস্থানের স্থান থেকে ৪৮ মাইল কিংবা সমপরিমাণ ৭৭.২৩ কিলোমিটার দূরে হয় এবং বাবার বাড়িতে ১৫ দিনের কম থাকার ইচ্ছা পোষণ করে তাহলে সে মুসাফির হিসেবে জোহর, আসর এবং ইশার (চার রাকাআত বিশিষ্ট) ফরজ নামাজের পরিবর্তে দুই রাকাআত কসর নামাজ পড়বেন। (আদ্দুররুল মুখতার মা’ আররাদ্দিল মুহতার ২/১২১,১২২)

আয়েশা রাযি. বলেন,

فُرِضَتِ الصَّلَاةُ رَكْعَتَيْنِ رَكْعَتَيْنِ فِي الْحَضَرِ وَالسَّفَرِ، فَأُقِرَّتْ صَلَاةُ السَّفَرِ، وَزِيدَ فِي صَلَاةِ الْحَضَرِ

মুকিম ও মুসাফির অবস্থায় নামায দু’দু রাক’আত ফরজ করা হয়েছিল। পরে সফরের নামায ঠিক রাখা হল কিন্তু মুকিমের নামাযে বৃদ্ধি করা হল। (বুখারী ১০৪০ মুসলিম ৬৮৫)

দুই. কিন্তু উক্ত নারী যদি নিজেকে মুকিম মনে করে ভুলক্রমে চার রাকাআত বিশিষ্ট ফরজ নামাজ চার রাকাআতই আদায় করে নেয় তাহলে তার নামাজ হয়ে যাবে। তবে ওয়াক্তের ভিতরে স্মরণ হলে আবার কসর পড়ে নিতে হবে। পরবর্তীতে স্মরণ হলে আর সেই নামাজ দোহরাতে হবে না। (তাতারখানিয়া ২/৫)

রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,

  إِنَّ اللَّهَ تَجَاوَزَ لِي عَنْ أُمَّتِي الْخَطَأَ وَالنِّسْيَانَ ، وَمَا اسْتُكْرِهُوا عَلَيْهِ

নিশ্চয় আল্লাহ আমার উম্মতের ভুল, বিস্মৃতি এবং বাধ্য হয়ে করা বিষয় ক্ষমা করেছেন। (ইবন মাজাহ ২০৪০)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × one =