বিয়ের পরে স্বামী সন্তান নিতে অনিচ্ছুক হলে স্ত্রীর করণীয় কী?

জিজ্ঞাসা–১২১৯: বিয়ের পরে স্বামী সন্তান নিতে অনিচ্ছুক হলে স্ত্রীর করণীয় কী?–Md amzad hossien

জবাব: ইসলাম বিয়েকে পবিত্র পন্থায় বংশ বিস্তারের মাধ্যম বানিয়েছে। রাসুলুল্লাহ অধিক সন্তান গ্রহণকারিণী নারীকে বিয়ে করার নির্দেশ প্রদান করেছেন। হাদিস শরিফে এসেছে, মা‘কিল ইবনু ইয়াসার রাযি. সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, এক ব্যক্তি নবীজি -এর খিদমাতে উপস্থিত হয়ে বললো, আমি এক সুন্দরী ও মর্যাদাসম্পন্ন নারীর সন্ধান পেয়েছি। কিন্তু সে বন্ধ্যা। আমি কি তাকে বিয়ে করবো? তিনি বললেন, না। অতঃপর লোকটি দ্বিতীয়বার এসেও তাঁকে জিজ্ঞেস করলে তিনি তাকে নিষেধ করলেন। লোকটি তৃতীয়বার তাঁর নিকট এলে তিনি তাকে বললেন,

 تَزَوَّجُوا الْوَدُودَ الْوَلُودَ فَإِنِّي مُكَاثِرٌ بِكُمُ الأُمَمَ

এমন নারীকে বিয়ে করো যে প্রেমময়ী এবং অধিক সন্তান প্রসবকারী। কেননা আমি অন্যান্য উম্মাতের কাছে তোমাদের সংখ্যাধিক্যের কারণে গর্ব করবো। (আবু দাউদ ২০৫০)

সুতরাং ইসলামসম্মত কোনো কারণ ছাড়া সন্তান কম নেওয়া বা একেবারে না নেওয়া ইসলামবিরোধী কাজ। আর সন্তান নেওয়ার ক্ষেত্রে স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই হক রয়েছে। তাই প্রশ্নোক্ত অবস্থায় উক্ত স্বামী সন্তান নিতে অনাগ্রহী হওয়ার মাধ্যমে নিজের স্ত্রীর হক নষ্ট করছেন। পাশাপাশি ইসলামেরও অবাধ্যতা করছেন। অতএব যথাসম্ভব তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করুন। তার পরও সম্ভব না হলে প্রয়োজনে তার অভিভাবকদের সহযোগিতা নিতে পারেন।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × five =