মনে মনে তালাকের চিন্তা করলে তালাক হয় কিনা?

জিজ্ঞাসা–২৭০: আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ। স্ত্রী তালাকের ব্যাপারে মনে মনে চিন্তা করলে কি স্ত্রী তালাক হয়ে যাবে? তালাকের শরয়ী বিধানটা জানালে উপকৃত হব।–abdullah

জবাব:وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

প্রিয় প্রশ্নকারী দীনি ভাই, তালাক ইসলামে অত্যন্ত স্পর্শকাতর বিষয়। একান্ত শরঈ-প্রয়োজন ছাড়া এর প্রয়োগ গুনাহর কাজ এবং অনিবার্য ক্ষতির কারণ। ইসলামি-শরিয়তে তালাকের পথ খোলা রাখা হয়েছে শুধু অতীব প্রয়োজনের (যা শরীয়তে ওজর বলে গণ্য) ক্ষেত্রে ব্যবহারের জন্য। সুতরাং এর যথেচ্ছা ব্যবহার যেমনভাবে কাম্য নয়, তেমনিভাবে এর চিন্তা বা নিয়ত করাও উচিত নয়। তবে মুখে উচ্চারণ না করে শুধু চিন্তা করলে তালাক পতিত হয় না। (উমদাতুল কারী শরহুল বুখারি ২০/২৫৬)

আলমাউসুয়া’তুল ফিকহিয়া (২৩/২৯)– এসেছে,

فإذا نوى التّلفّظ بالطّلاق ثمّ لم يتلفّظ به : لم يقع بالاتّفاق

ودليل الجمهور قول النّبيّ صلى الله عليه وسلم : ( إنّ اللّه تجاوز لأمّتي عمّا حدّثت به أنفسها ، ما لم تعمل أو تكلّم به )

‘কোন ব্যক্তি তালাকের নিয়ত করেছে, অতপর মুখে উচ্চারণ করে নি, তাহলে সকলের মতে তালাক হবে না। কেননা রাসুলুল্লাহ বলেছেন, আল্লাহ তাআলা আমার উম্মতের মনের কথাগুলো ক্ষমা করেন, যতক্ষণ পর্যন্ত তা বাস্তবে করা হয় না কিংবা মুখে উচ্চারণ করা হয় না।’

والله أعلم بالصواب