মোবাইল বন্ধক রেখে ঋণ নেয়া যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–৯২: ভিসার জন্যে আমার কিছু টাকা প্রয়োজন। আমি একজনকে বললাম, আপনি আমার মোবাইলটি নিয়ে আমাকে এত টাকা দেন । যদি আমি আমার কাজটি করতে পারি তাহলে আপনি মোবাইলটি নিয়ে নিবেন । আর কাজ না হয় আমি তিন মাসের মধ্যে সমস্ত টাকা পরিশোধ করে দিব । এই ধরণের লেনদেন জায়েয আছে কিনা?[email protected]

জবাব: এই ধরণের লেনদেন জায়েয হবে না। কেননা ঋণ দিয়ে বিনিময়ে গ্রহীতা থেকে কোনো ধরনের উপকৃত হওয়া জায়েয নেই। তা সুদের অন্তর্ভুক্ত। প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে বন্ধকি-মোবাইল থেকে ঋণদাতা উপকৃত হচ্ছ। এর দলিল হল,

মুহাম্মাদ ইবনে সিরিন রহ. থেকে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাযি. এর নিকট এক ব্যক্তি এসে বলল, আমার কাছে এক ব্যক্তি একটি ঘোড়া বন্ধক রেখেছে। আমি এতে আরোহণ করেছি। (এর কী হুকুম?) তখন আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাযি. বললেন, مَا أَصَبْتَ مِنْ ظَهْرِ فَرَسِهِ فَهُوَ رِبًا তুমি এর পিঠ থেকে (আরোহণ করে) যে উপকৃত হয়েছ তা সুদের অন্তর্ভুক্ত। (মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক ১৫০৭১)

তাছাড়া ঋণ প্রদানের সাথে এভাবে অন্য লেনদেনের শর্ত করা নাজায়েয। হাদীস শরীফে এ ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা এসেছে।  আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাযি. বলেন, একই কারবারে আরেকটি চুক্তি শর্তযুক্ত করা সুদের অন্তর্ভুক্ত। (সহীহ ইবনে হিববান ১০৫৩)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী