মোহরের টাকা মেয়ের বাবার হাতে দেয়া যায় কি?

জিজ্ঞাসা–১৩৯২: মোহরের টাকা কি স্ত্রীকে দিতে হয় নাকি তার বাবা/অভিভাবককে দিতে হয় এবং কোন সময়ে দেয়া উত্তম?–নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

জবাব: 

এক. মোহর মূলত একটি সম্মানী যা স্বামী তার স্ত্রীকে দিয়ে থাকে, যার মূল উদ্দেশ্যই হল নারীকে সম্মান ও মর্যাদা দেওয়া। এটা স্ত্রীর হক। স্ত্রীর এই হক তার কাছে পৌঁছে দেয়াই মূল উদ্দেশ্য। সুতরাং এটা যেমনিভাবে সরাসরি তার হাতে দেয়া যায়, অনুরূপভাবে তার সম্মতিতে তার বাবা কিংবা ভাইয়ের হাতে দিয়েও তার কাছে পৌঁছে দেয়া যায়। আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَآتُوا النِّسَاءَ صَدُقَاتِهِنَّ نِحْلَةً ۚ فَإِن طِبْنَ لَكُمْ عَن شَيْءٍ مِّنْهُ نَفْسًا فَكُلُوهُ هَنِيئًا مَّرِيئًا

এবং তোমরা নারীদেরকে দাও তাদের মোহর খুশিমনে। এরপর তারা যদি স্বেচ্ছায় স্বাগ্রহে ছেড়ে দেয় কিছু অংশ তোমাদের জন্য তাহলে তা স্বচ্ছন্দে ভোগ কর।(সূরা নিসা : ৪)

দুই. মোহর দুই ধরণের হয়। এক. مهر معجل (মোহরে মু‘আজ্জাল) বা নগদ মোহর। দুই. مهر مؤجل (মোহরে মুয়াজ্জাল) বা বাকি মোহর। ‘নগদ মোহর’ বিয়ে সম্পন্ন হওয়ামাত্র নগদ আদায় করা অপরিহার্য হয়ে যায়। হয়তো সে বিয়ের সময়ই তা পরিশোধ করে দিবে অথবা বিয়ের পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিশোধ করবে। এক্ষেত্রে স্ত্রীর তা দাবি করার অধিকার আছে। সুতরাং স্বামীর কর্তব্য হল স্ত্রীর চাওয়ার অপেক্ষা না করে যত দ্রুত সম্ভব এই ফরয দায়িত্ব হতে মুক্ত হওয়া।

আর ‘বাকি মোহর’ মানে যা পরিশোধের জন্য উভয় পক্ষ কোনো তারিখ নির্ধারণ করে নেয়। ঐ তারিখ আসার আগে মোহর আদায় করা স্বামীর জন্য আবশ্যকীয় নয়। স্ত্রীও সেই তারিখের আগে এই মোহর দাবি করতে পারবে না।

والله اعلم بالصواب