রাস্তায় ঘাসের উপর নামাজ পড়া যাবে কি?

জিজ্ঞাসা–১৬১২: অনেক সময় কাজে কারণে বাড়িতে বা মসজিদে নামাজ পড়তে পারি না। অথবা দেরি করে ফেললে নামাজের সময় চলে যাবে।এখন যদি আশেপাশে পবিত্র জায়গা না থাকে, সেক্ষেত্রে রাস্তায় ঘাসের উপরে নামাজ পড়তে পারবো কি?–Md shamim hossen

জবাব:

এক. যদি বাহ্যিক নাপাকি না থাকে তাহলে প্রয়োজনে রাস্তায় ঘাসের উপরে নামাজ পড়া নিষেধ নয়। কেননা নির্মিত মসজিদ ছাড়া অন্য স্থানেও নামাজ পড়ার বৈধতা উম্মতে মুহাম্মাদিয়ার জন্য এক স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য। রাসূলুল্লাহ বলেছেন,

وجُعِلَتْ لي الأرْضُ مَسْجِدًا وطَهُورًا، فأيُّما رَجُلٍ مِن أُمَّتي أدْرَكَتْهُ الصَّلَاةُ فَلْيُصَلِّ

সমস্ত জমিন আমার জন্যে নামাজ আদায়ের স্থান ও পবিত্রতা অর্জনের উপায় করা হয়েছে। কাজেই আমার উম্মতের যে কেউ যেখানে নামাজের ওয়াক্ত হয়, সেখানেই যেন নামাজ আদায় করে নেয়। (বুখারী ৪৩৮)

অপর হাদিসে রাসূলুল্লাহ বলেছেন,

الأرضُ كلُّها مسجدٌ إلا المَقبرَةَ والحمامَ

কবরস্থান ও গোসলখানা ছাড়া সারা পৃথিবীর সমস্ত জায়গাই সিজদার স্থান। (আবু দাউদ ৪৯২)

দুই. তবে সেজদার স্থানটা যদি তুলতুলে নরম হয় তাহলে সেজদা করার সময় কপাল ও নাক ভালোভাবে লাগাতে হবে, যাতে শক্ত অনুভব হয়। কেননা রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,

وَإِذَا سَجَدْتَ فَأَمْكِنْ جَبْهَتَكَ مِنَ الأَرْضِ، حَتَّى تَجِدَ حَجْمَ الأَرْضِ

যখন তুমি সেজদা করবে তখন কপাল ভালোভাবে জমিনের সঙ্গে লাগাবে, যাতে করে জমিনের কাঠিন্য অনুভব হয়। (মুসনাদে আহমাদ ২৬০৪)

والله أعلم بالصواب

Leave a Reply

Your email address will not be published.

fifteen − 3 =