রেইনবো কালার কোডেড কোরআন ব্যবহারের বিধান

জিজ্ঞাসা–১০৪২: আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ,ইদানীং কিছু কোরআন দেখা যায় যেগুলোর পৃষ্ঠাগুলো অনেক কালারফুল হয়। এই রেইনবো কালার কোডেড কোরআন কেনা বা ব্যবহার করা কি জায়েজ হবে?– Kaniz Fatema

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

প্রিয় প্রশ্নকারী বোন, বলা বাহুল্য যে, সঠিক উচ্চারণে কোরআন তিলাওয়াত না করা কবিরা গুনাহ। আর এজন্যই ওলামায়ে কেরাম বাংলা উচ্চারণ দেখে কোরআন পড়া থেকে নিষেধ করেন। কেননা, এতে অক্ষরের উচ্চারণ ভুল হয়ে কোরআনের অর্থ বিকৃত হওয়ার আশঙ্কা থাকে শতভাগ।

আর কালার কোডেড কোরআনে ভিন্ন ভিন্ন কালারের মাধ্যমে পুরো কোরআন মজিদ জুড়ে তাজবিদের কায়দা/নিয়মাবলী দেখানো আছে। কোথায় মদ হবে, কোথায় গুন্নাহ হবে, কোথায় ক্বলক্কলাহ হবে তা চিহ্নিত করা আছে। ফলে খুব সহজেই তাজবিদের সাথে সঠিক নিয়ম মেনে আল্লাহ তাআলার কালাম বিশুদ্ধভাবে তিলাওয়াত করা সহজ হয়। সুতরাং এটির ব্যবহার নিঃসন্দেহে জায়েয। আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَرَتِّلِ الْقُرْآنَ تَرْتِيلًا

কুরআন তিলাওয়াত কর ধীরস্থিরভাবে, স্পষ্টরূপে। (সূরা মুযযাম্মিল ৭৩)

রাসুলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,

زَيِّنُوا الْقُرْآنَ بِأَصْوَاتِكُمْ

সুন্দর সূরের মাধ্যমে কোরআনকে (এর তিলাওয়াতকে) সৌন্দর্যমণ্ডিত কর। (আবু দাউদ ১৪৬৮)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six + 19 =