রোজার কাফফারা আদায়ের হিম্মত নেই; কী করব?

জিজ্ঞাসা–৪৫৪: বালেগ হওয়ার পর, কৈশোরেই অভিভাবকদের অবহেলায় রোযা ভঙ্গের কাফফারা সম্পর্কে জ্ঞান ও সচেতনতার অভাবে রমজান মাসে যদি কেউ পানি পান করে ফেলে গরমে পিপাসা লেগে যাওয়ার কারণে, কাযা ও কাফফারা কি ওয়াজিব হয়ে গেছে তার জন্য? এখন যদি লাগাতার ৬০টি রোজা রাখার হিম্মত না করতে পারে এই আশংকায় যে হয়ত ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে সক্ষম হবে না, তাহলে তার জন্য কি করণীয়?–রাশেদ

জবাব: বিনাওজরে ইচ্ছাকৃত পানাহার বা সহবাসের মাধ্যমে রমজানের রোজা ভেঙে ফেললে তার কাজা ও কাফফারা অর্থাৎ লাগাতার ষাট দিন রোজা রাখতে হয়। (মাবসুত সারাখসি ৩/৭২) অসচেতনা কিংবা অবহেলা শরিয়তে গ্রহণযোগ্য ওজর নয়। প্রিয় ভাই, সুতরাং আল্লাহকে ভয় করুন, হিম্মত করুন। ইনশা-আল্লাহ, সফল হবেন।

আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَمَن يُعَظِّمۡ شَعَٰٓئِرَ ٱللَّهِ فَإِنَّهَا مِن تَقۡوَى ٱلۡقُلُوبِ

“এটাই হল আল্লাহর বিধান; যে আল্লাহর নিদর্শনসমূহকে সম্মান করে, নিঃসন্দেহে তা অন্তরের তাকওয়া থেকেই।” (সূরা ‎হাজ্জ  ৩২)‎

والله اعلم بالصواب

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 + 4 =