স্ত্রী অসুস্থ থাকলে উপভোগের বৈধ কোনো পদ্ধতি আছে কি?

জিজ্ঞাসা–১২৩৩: স্ত্রী অসুস্থ থাকলে সহবাসের কথা তাকে বলতে খারাপ লাগে, অনেক সময় সহবাস করতে চাইলেও সে অসুস্থতার কারণে অনীহা প্রকাশ করে, তাই তাকে বিরক্ত করতে ভালো লাগে না। এক্ষেত্রে যৌন আকাঙ্খা নিবারণের উপায় কী? দয়া করে জানাবেন। –জাভেদ।

জবাব: স্ত্রীর মলদ্বারে সহবাস এবং ঋতুবতী ও প্রসব পরবর্তী সময়ে নির্গত রক্তস্রাব অবস্থায় সহবাস করা হারাম। এছাড়া স্বামী-স্ত্রী পরস্পরের দেহ থেকে সব উপায়ে সুখ নেয়ার অনুমতি ইসলামে আছে। কেননা, আল্লাহ তাআলা বলেন,

نِسَاؤُكُمْ حَرْثٌ لَّكُمْ فَأْتُوا حَرْثَكُمْ أَنَّىٰ  شِئْتُمْ

তোমাদের স্ত্রীগণ তোমাদের জন্য ক্ষেতস্বরূপ; অতএব তোমরা যেভাবেই ইচ্ছা তোমাদের ক্ষেতে গমণ কর। (সূরা বাকারা ২২৩)

হাদীস শরীফে এসেছে, ঋতুবতী স্ত্রীর সাথে মেলামেশা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেন,

اصْنَعُوا كُلَّ شَيْءٍ إِلا النِّكَاحَ

সহবাস ব্যতীত তার সাথে সবকিছু কর। (মুসলিম ৩০২)

অপর হাদীসে এসেছে,

عَنْ بَعْضِ أَزْوَاجِ النَّبِيِّ ﷺ أَنَّ النَّبِيَّ ﷺ كَانَ إِذَا أَرَادَ مِنَ الْحَائِضِ شَيْئًا أَلْقَى عَلَى فَرْجِهَا ثَوْبًا

রাসূলুল্লাহ ﷺ-এর কোন এক স্ত্রী সূত্রে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ ﷺ তাঁর ঋতুবতী স্ত্রীর সাথে কিছু করতে চাইলে স্ত্রীর লজ্জাস্থানের উপর কাপড় রেখে তারপর করতেন। (আবূ দাউদ ২৭২)

ফাতাওয়া লাজনাতিদ্দায়িমা (৫/৩৯৫)-তে এসেছে,

يحرم على الزوج أن يجامع زوجته في فرجها وهي حائض ، وله أن يباشرها فيما عداه

স্বামীর জন্য স্ত্রীর মাসিক চলাকলীন যোনিপথে সহবাস করা হারাম। (যোনি ব্যবহার ও পুংমৈথন ছাড়া) অন্য উপায়ে যৌনসুখ নেয়ার অধিকার স্বামীর আছে।

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী