স্ত্রী সহবাসের সময় অন্য নারীর প্রতিচ্ছবি কল্পনা করা

জিজ্ঞাসা–৯৯৪: স্ত্রী সহবাসের সময় অন্য মেয়ে লোকের চিন্তা করা যাবে কি না?–বেলাল মাহমুদ।

জবাব: স্ত্রী সহবাসের সময় অন্য নারীর প্রতিচ্ছবি কল্পনা করা, অনুরূপভাবে নিজ স্বামীর সাথে সহবাসের সময় অন্য পুরুষের কল্পনা করার বিষয়টিকে প্রত্যেক সুস্থ বিবেকমান মুমিনই মন্দ ও নিন্দার চোখেই দেখে থাকে। আর হাদিসে আছে,

ما رأى المسلمونَ حسنًا فهوَ عندَ اللهِ حَسَنٌ وما رَأَوا سيِّئًا فهو عندَ اللهِ سيئٌ

মুসলিমরা (ঈমানি বিবেক নিয়ে) যে জিনিস ভালো চোখে দেখে তা আল্লাহর কাছে ভালো। আর মুসলিমরা যে জিনিস মন্দ চোখে দেখে সেটা আল্লাহর কাছে মন্দ। ( মুসনাদে আহমাদ ৫/২১১)

অপর হাদিসে এসেছে,

عَنْ جَابِرٍ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ إِنَّ الْمَرْأَةَ تُقْبِلُ فِي صُوْرَةِ شَيْطَانٍ وَتُدْبِرُ فِي صُوْرَةِ شَيْطَانٍ إِذَا أَحَدُكُمْ أَعْجَبَتْهُ الْمَرْأَةُ فَوَقَعَتْ فِي قَلْبِهِ فَلْيَعْمِدْ إِلَى إِمْرَأَتِهِ فَلْيُوَاقِعْهَا فَإِنَّ ذَلِكَ يَرُدُّ ماَ فِي نَفْسِهِ.

জাবির রাযি. বলেন, রাসূল বলেছেন, নিশ্চয়ই মহিলারা শয়তানের আকৃতিতে আসে আর শয়তানের আকৃতিতে যায়। যদি কোন নারীকে তোমাদের কাউকে ভাল লাগে এবং সে অন্তরে গেঁথে যায়, তাহলে সে যেন তার স্ত্রীর নিকট চলে যায় এবং তার সাথে মিলনে লিপ্ত হয়। নিশ্চয়ই এ মিলন অন্তরের মন্দ পরিকল্পনা দূর করে দিবে। (মুসলিম ৩৪৭৩)।

এই হাদিস থেকেও বোঝা যায়, কোনো নারীকে দেখার পর অন্তরে যা জন্ম নেয় সেটা মনের মধ্যে ধরে রাখা নাজায়েয। কেননা হাদিসটিতে রাসুলুল্লাহ নারীকে দেখার পর অন্তরে যা জন্ম নেয় তা দূর করার পন্থা শিখিয়ে দিয়েছেন। আর নিজ স্ত্রীর সাথে সহবাসের সময় অন্য নারীর প্রতিচ্ছবি কল্পনা করা মানে এই উক্ত নাজায়েয কাজ করার সুযোগ সৃষ্টি হওয়া।

যার কারণে ইবনু আবিদীন শামি রহ. বলেন,

ولم أر من تعرض للمسالة عندنا (يعني الحنفية)

‘আমাদের (হানাফি মাজহাবের) কেউ মাসআলাটিতে আপত্তি করেছেন বলে আমি দেখি নি। (হাশিয়াতু ইবনু আবিদীন ৬/৩৭২)

ইবনুল হাজ আল মালিকি রহ. বলেন,

ويتعين عليه أن يتحفظ على نفسه بالفعل ، وفي غيره بالقول من هذه الخصلة القبيحة التي عمت بها البلوى في الغالب ، وهي أن الرجل إذا رأى امرأة أعجبته ، وأتى أهله جعل بين عينيه تلك المرأة التي رآها ، وهذا نوع من الزنا

বাস্তবে নিজেকে এবং কথার মাধ্যমে অন্যকে এই মন্দ অভ্যাস যা ব্যাপকভাবে সমাজে প্রচলিত তা থেকে বিরত রাখা আবশ্যক। আর তা হলো একজন ব্যক্তি যখন কোনো নারীকে দেখার পর সেই নারী তাকে আকর্ষণ করে তখন সে তার স্ত্রীর সাথে সহবাস করার সময় সেই নারীকে তার চোখের সামনে দৃশ্যমান রাখে যাকে সে দেখেছিলো। এটা এক প্রকার ব্যভিচার। ( আল মাদখাল ২/ ১৯৫ )

ইবনু মুফলিহ আল হাম্বালি রহ. বলেন,

  لو استحضر عند جماع زوجته صورة أجنبية محرمة أنه يأثم

যদি কেউ তার স্ত্রীর সাথে সহবাসের সময় অন্য নারীর অবয়বকে কল্পনা করে তাহলে সে গুনাহগার হবে। (আল আদাব ৯৮)

বিস্তারিত জানার জন্য পড়ুন জিজ্ঞাসা নং–৫৭৮

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − 11 =