স্বামী স্ত্রীর দুধ পান করলে বিবাহ বন্ধনে কোনো সমস্যা হবে কি?

জিজ্ঞাসা–১৩৩৩: স্বামী স্ত্রীর দুধ পান করলে বিবাহ বন্ধনে কোন সমস্যা হবে কি? কৌতূহলবশতঃ কি দুধের স্বাদ নিতে পারবে কি? উত্তর জানবেন।  –পাপপু।

জবাব: প্রিয় প্রশ্নকারী ভাই, প্রায় সকল আলেম এব্যাপারে একমত যে, স্ত্রীর দুধ পান করা স্বামীর জন্য হারাম। (জাওয়াহিরুল ফিকহ ৭/৪৬)। কেননা, স্ত্রীর দুধ তার সন্তানের জন্য নির্ধারিত। আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَالْوَالِدٰتُ یُرْضِعْنَ اَوْلَادَهُنَّ حَوْلَیْنِ كَامِلَیْنِ

মায়েরা তাদের সন্তানদের পূর্ণ দু বছর দুধ পান করাবে। (সূরা বাকারা ২৩৩)

তবে স্ত্রীর স্তন চোষা, লেহন করা, মর্দন করা, চুমো দেয়া নিষেধ নয়। হাদিসে এসেছে,

كان رسول الله ﷺ يُلاعبُ أهله ، ويُقَبلُها

রাসূলুল্লাহ ﷺ তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে আলিঙ্গন, চুম্বন ইত্যাদি করতেন। (যাদুল মা’আদ ৪/২৫৩)

সুতরাং স্ত্রীর স্তনে যদি দুধ থাকে তাহলে স্বামীকে সর্তক থাকতে হবে, যেন দুধ মুখে না আসে। যদি দুধ মুখে আসার আশঙ্কা থাকে সে ক্ষেত্রে চোষণ থেকে বিরত থাকা উচিত। (মাহমূদিয়া কাদিম ১২/৩১০, শামী ১/৩১)

তদুপরি স্ত্রীর স্তন চোষার ফলে যদি দুধ বেরিয়ে মুখে চলে আসে তাহলে সে দুধ গলায় বা খাদ্যনালীতে যাওয়ার পূর্বেই ফেলে দিতে হবে। যদি ফেলে না দিয়ে গিলে ফেলে তাহলে তা স্বামী স্ত্রীর বিবাহ বন্ধনে কোন সমস্যা হবে না। তবে কাজটি যেহেতু গুনাহর কাজ তাই আল্লাহর কাছে তাওবা করে নেয়া উচিত।

والله اعلم بالصواب

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *