চুলে রং করলে অজু-গোসলে সমস্যা হয় কি?

জিজ্ঞাসা–২৪৮: চুল পাকে নি কিন্তু সুন্দর দেখানোর জন্য চুলে কালার করলে কি নামাজ অথবা শরীর পাক এর জন্য কোন সমস্যা হবে?–Rokibul Islam

জবাব: যদি রং এমন হয় যা ব্যবহারে ব্যবহারকারীর চুলে আবরণ পড়ে যায়। যার ফলে ব্যবহারকারীর চুলে পানি ঢুকে না। এই ধরণের কালার করা সকলের ঐক্যমতে হারাম। তা ব্যবহারে ওযু গোসল নামায কোনটাই শুদ্ধ হবে না। কেননা, ওযু গোসলের সময় সমস্ত অঙ্গে পানি পৌঁছানো ফরজ । কিন্তু প্রলেপের কারণে অজু গোসলের অঙ্গে পানি পৌঁছায় না।

ফতওয়ার কিতাবে এসেছে,والخضاب اذا تجسد ويبس يمنع تمام الوضوء والغسل আর খেজাব যখন জমে গিয়ে শুকিয়ে যাবে তখন অজু কিংবা গোসল কোনটাই হবে না। (আলমগীরী ১/৪)

পক্ষান্তরে যে রং ব্যবহার করলে আবরণ পড়ে না; তা ব্যবহারে  ওযু গোসল নামাযের অসুবিধা হয় না। তবে এজাতীয় রং কালো হলে ব্যবহার করা মুজাহিদ ব্যতিত অন্য কারো জন্য জায়েজ নয়। কেননা, এমর্মে একাধিক হাদীসে নিষেধাজ্ঞা এসেছে। যেমন, এক হাদীসে এসেছে, রাসূল ﷺ বলেছেন,

يَكُونُ فِي آخِرِ الزَّمَانِ قَوْمٌ يُسَوِّدُونَ أَشْعَارَهُمْ لَا يَنْظُرُ اللهُ إِلَيْهِم” – رَوَاهُ الطَّبَرَانِيُّ فِي الْأَوْسَطِ، وَإِسْنَادُهُ جَيِّدٌ

আখেরী যামানায় এমন কিছু লোক বের হবে যারা তাদের চুল-দাঁড়ি কালো করবে। (কেয়ামত দিবসে) আল্লাহ এদের প্রতি তাকাবেন না। (মু’জামুল আওছাত ৩৮০৩, মাজমাউয যাওয়ায়েদ ৮৭৯৩)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
শায়েখ উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × five =