বিয়ের আকদের সময় সাক্ষী রাখতে হয়

জিজ্ঞাসা–৮৫৯: আসসালামু আলাইকুম। আপনার একটা প্রশ্নের উত্তরে নিন্মের হাদিসটি পেলামঃ তিনটি বিষয় এমন রয়েছে যা গোস্বায় হোক বা হাসি ঠাট্টায় হোক সর্বাবস্থায় কার্যকরী হয়ে থাকে। বিবাহ, তালাক ও রজয়াত। (আবু দাউদ ২১৯৪ তিরমিযি ১১৮৪). বছর কয়েক আগের ঘটনা। একটা মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল (এখন নাই, বাসায় বিয়ের জন্য পাত্রী খুজছে)। একদিন মেয়েটির সাথে ফোনে কথা বলার সময় আমার মামা হটাৎ আমার থেকে ফোন করে নেয় এবং মেয়েটিকে ঠাট্টাচ্ছলে ফোনে জিজ্ঞেস করে, অমুকের (আমার বাবার নাম) ছেলের (আমার নাম) সাথে *** টাকা দেনমোহরে (টাকার একটা পরিমান উল্লেখ ছিল) তোমার বিয়ে ধার্য করলাম। বল কবুল। মেয়েটি তখন উত্তর দেয় ‘কবুল’। উল্লেখ, সে সময় মামা আর আমি ছাড়া অন্য কেউ ছিলোনা। মেয়েটি এখনো অবিবাহিত। আমাদের কি বিয়ে হয়ে গেছে? প্লিজ জানাবেন। জাজাকাল্লাহ খাইরান।–নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

জবাব: وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

না, আপনাদের বিয়ে হয় নি। কেননা, ইসলাম বলেছে, কমপক্ষে দু’জন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ বা একজন পুরুষ ও দুইজন মহিলার সাক্ষী ছাড়া এভাবে বিয়ে করলে বিয়ে হবে না। বিয়ের আকদের সময় সাক্ষী রাখতে হবে। এর দলীল হচ্ছে- নবী বলেছেন, لا نكاح إلا بوليّ وشاهدين অভিভাবক ও দুইজন সাক্ষী ছাড়া কোন বিবাহ নেই। (আহমাদ, বুলূগুল মারাম- হা/৯৭৬, বিয়ে অধ্যায়)

والله اعلم بالصواب
উত্তর দিয়েছেন
মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − eighteen =